পরিবেশের অস্কার পেলো বান্দরবানের বেসরকারি প্রতিষ্ঠান তহজিংডং

রফিকুল আলম মামুন, নিজস্ব প্রতিবেদক, মৈত্রী অনলাইন
প্রকাশ: সোমবার, ২৭ মার্চ ২০১৭ সময়- ৬:৪৭ অপরাহ্ন

tohjingdong pic
রবিবার শহরের ভেনাস রিসোর্টে এওয়ার্ড প্রাপ্তি উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনের প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা।

বান্দরবান : পার্বত্য চট্টগ্রামে প্রাকৃতিক পরিবেশ ও মৌজাবন সংরক্ষনে অসামান্য অবদান রাখায় পরিবেশের অস্কার খ্যাত বিশ্ব এনার্জি গ্লোব এওয়ার্ড (Energy globe World Award) অর্জন করেছে বান্দরবানের বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা তহজিংডং (Tahzingdong)।  সরকারি বেসরকারি পরিবেশ সংরক্ষণমূলক উদ্ভাবনী প্রকল্পের মধ্যে ধরিত্রী (Earth) ক্যাটাগরিতে এ বিরল সম্মাননাটি জিতে নেয় সংস্থাটি।  প্রকল্পটি বাস্তবায়নে তহজিংডংকে আর্থিক ও কারিগরি সহায়তা দিচ্ছে স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান আরণ্যক ফাউন্ডেশন।

জানা যায়, গত বছরের ১০ নভেম্বর মরক্কোয় জাতিসংঘের বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলন মারাকাসে এই পুরস্কার ঘোষনা করে বিশ্বে পরিবেশের ওপর কাজ করা প্রতিষ্ঠান এনার্জি গ্লোব ফাউন্ডেশন।  এ বছরের ১৭ মার্চ অষ্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় এক অনুষ্ঠানে এওয়ার্ডটি তহজিংডং কর্তৃপক্ষের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দেন এনার্জি গ্লোব ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা উলফগ্যাং নয়ম্যান।

এদিকে পুরস্কার অর্জন এবং প্রকল্পটির বিষয়ে সাংবাদিকদের অবহিত করতে রবিবার সকালে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে সংস্থাটি।  স্থানীয় একটি হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা।  বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান তরুন কুমার ঘোষ, বেসরকারী সংগঠন আরণ্যকের র্নিবাহী পরিচালক ফরিদ উদ্দনি আহমেদ, তহজিংডংয়ের নির্বাহী পরিচালক চিং সিং প্রুসহ বিভিন্ন মিডিয়ায় কর্মরত সংবাদর্কমীরা।

সংবাদ সম্মেলনে সংস্থাটির কর্মকর্তারা তাদের বাস্তাবায়নাধীন প্রকল্প Community based Conservation of Village Common Forest in Rowangchari, Bandarban সম্পর্কে বিস্তারিত ধারনা দেন।

কর্মকর্তারা জানান, ২০০৯ সাল থেকেই মূলতঃ পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রাকৃতিক বন ও বনের জীব বৈচিত্র সংরক্ষণে কাজ করছে আরণ্যক ও তহজিংডং।  এরই অংশ হিসেবে শুরু করা হয় Community based Conservation of Village Common Forest in Rowangchari, Bandarban নামক প্রকল্পটি।  র্দূগম এলাকার স্থানীয় বন র্নিভরশীল আদিবাসী পাহাড়ীদের সম্পৃক্ত করা হয় প্রকল্পের সাথে।

তহজিংডংয়ের র্নিবাহী পরিচালক চিংসিং প্রু জানান, প্রকল্পটিতে পাহাড়ের নয়টি জাতিগোষ্ঠির কয়েকহাজার মানুষের অংশগ্রহন রয়েছে।  এর মাধ্যমে পাহাড়ের প্রাকৃতিক বনভূমি রক্ষা করে প্রান ও উদ্ভিদ বৈচিত্রকে সংরক্ষণ করা হচ্ছে।  এসব প্রকল্প বাস্তবায়ন করা গেলে র্দুগম পাহাড়ের বাসিন্দাদের পানীয় জল, জীবন যাত্রা ও সামাজিক অনেক চাহিদা মেটানো সহজ হবে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সচিব নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা বলেন, অর্জনটি এখন শুধু বান্দরবানের নয়।  এটি এখন সারা দেশের।  পাহাড়ের বাসিন্দাদের জীবন মান উন্নয়নে এ ধরনের প্রকল্প চালু রাখতে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে।  এসময় তিনি এওয়ার্ড প্রাপ্তির জন্য প্রকল্প সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানান।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে এনার্জি গ্লোব পুরস্কারের জন্য বিশ্বের ১৭৮ টি দেশ পরিবেশের ওপর দুই হাজার উদ্বাবনী প্রকল্প জমা দেয়। এর মধ্যে প্রতিযোগিতা করে আর্থ ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হয়ে বাংলাদেশকে গৌরবাহ্নিত করে বেসরকারি সংস্থা তহজিংডং।

মৈত্রী/ আরএএম/ এএ

Banner