যেসব উদ্ভাবনে চোখ জুড়াবে….

আলাউদ্দিন আলিফ, ব্যুরো চিফ, দৈনিক সচিত্র মৈত্রী
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৭ সময়- ৪:০২ অপরাহ্ন

IMG_4159

বিআইসিসি থেকে : দুর্ঘটনায় অঙ্গহানি কিংবা জন্মগতভাবেই পক্ষাঘাতগ্রস্থ। সুস্থভাবে হাঁটা হয়তো আপনার স্বপ্ন। সেই স্বপ্নকে বাস্তবে রুপ দিতে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে একদল মেধাবী তরুণ। তারা এমন একটি ডিভাইস উদ্ভাবন করেছেন যা দিয়ে হাঁটাচলায় অক্ষম ব্যক্তিও সাবলীলভাবে হাঁটতে পারবেন। এমন অনেক উদ্ভাবনী প্রযুক্তির পসরা সাজিয়ে আপনার অপেক্ষায় আছে ইনোভেশন জোন।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ১৮ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া তিন দিনের বাংলাদেশ আইসিটি এক্সপো ২০১৭ তে রাখা হয়েছে ইনোভেশন জোনে। এই জোনে তরুণ শিক্ষার্থীরা তাদের ১৮টি উদ্ভাবন প্রদর্শন করছে।

সেখানে কথা হয় চট্টগ্রাম প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) ইলেকট্রনিকস অ্যান্ড ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী মামুনুর রহমানের সঙ্গে। তিনি দৈনিক সচিত্র মৈত্রীকে বলেন,যারা হাঁটা চলায় অক্ষম, তাদের জন্য এই ডিভাইসটি উদ্ভাবন করেছি আমরা। হাঁটুতে এটি পরিধান করে স্বাভাবিকভাবে হাঁটাচলা করা যাবে। এটি তৈরি করতে আমাদের খরচ হয়েছে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা। বাণিজ্যিকভাবে এটি উৎপাদন করা গেলে ৮ হাজার টাকায় ডিভাইসটি পাওয়া যাবে।

দীর্ঘদিন ধরে ইলার্নিং নিয়ে গবেষণা করছেন রাজধানীর ইন্ডিপেনডেন্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল তরুণ। আইসিটি এক্সপোতে তারা ই-লার্নিংয়ের কার্যকরী পদ্ধতি নিয়ে হাজির হয়েছেন। প্রদর্শনীতে আগতদেরকে জানাচ্ছেন কীভাবে ঘরে বসেই বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ নেয়া যায়? এজন্য তারা এডুল্যাব নামের একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছেন। যেখান থেকে কম খরচে বিভিন্ন বিষয়ে জ্ঞান নেয়া যাবে।

IMG_4160

পটুয়াখালির বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের(পিএসটিইউ) কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী রাফসান উদ্দিন তার সহপাঠীদের নিয়ে ক্যামেলিয়ন অটোমেটিক প্যাকেজিং রোবট নামের একটি রোবট উদ্ভাবন করেছেন। যেটি পণ্যের আকার, রঙ ও ওজন অনুযায়ী আলাদা করতে পারে। এটি তৈরি করতে ১০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে।

রাফসান দৈনিক সচিত্র মৈত্রীকে বলেন, অনেক সময় দেখা যায় প্যাকেজিং এর কারণে ফলসহ বিভিন্ন পণ্যের ৩০ শতাংশ ক্ষতি হয়। এই রোবট ব্যবহার করলে ক্ষতির পরিমাণ ৫ শতাংশে নেমে আসবে। এই ডিভাইস বাণিজ্যিকরণে সরকারি বেসরকারি সহায়তা চাইলেন এই প্রকৌশল শিক্ষার্থী।

তিন দিনের এই প্রদর্শনী শেষ হবে ২০ অক্টোবর রাত আটটায়। প্রতিদিন সকাল ৮ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত এটি সবার জন্য উন্মুক্ত।

মৈত্রী/ এএ

Banner