স্পিকারের সঙ্গে জাপানের রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

সেন্ট্রাল ডেস্ক, মৈত্রী অনলাইন
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ৩১ অক্টোবর ২০১৭ সময়- ১০:৩০ অপরাহ্ন

dr. shirin sharmin dmoitry

ঢাকা : বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার ও সিপিএ নির্বাহী কমিটির চেয়ারপার্সন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি’র সঙ্গে বাংলাদেশে নবনিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত মি.হিরোয়াসিও ইজুমি আজ তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করেন। এ সময় তারা দ্বিপাক্ষিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।

স্পিকার বলেন, বাংলাদেশে বিভিন্ন অঞ্চলে একশটি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হয়েছে। এ সকল অঞ্চলে তিনি জাপানী ব্যবসায়ীদের প্রতি বিনিয়োগের আহবান জানান।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, সুদীর্ঘকাল থেকে জাপান বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী এবং বন্ধু রাষ্ট্র। তিনি বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে জাপানের সহযোগিতার প্রশংসা করেন এবং আগামীতেও এ সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ ও জাপানের সংসদীয় প্রতিনিধিদলের সফর ও মতবিনিময়ের মাধ্যমে দু’দেশের পার্লামেন্ট উপকৃত হতে পারে। সংসদীয় চর্চা ও গণতন্ত্র বিকাশে দু’দেশের সংসদ সদস্যদের সফর বিদ্যমান বন্ধুত্বকে আরও জোরদার করবে বলে তিনি প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

এ সময় স্পিকার জাপান সফরে সে দেশের স্পিকারের সঙ্গে সাক্ষাতের স্মৃতিচারণ করেন এবং সুবিধাজনক সময়ে জাপানের স্পিকারকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রন জানান।

রাষ্ট্রদূত সম্প্রতি বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর রোহিঙ্গাদের আশ্রয়দানের সিদ্ধান্ত মানবতার এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের মানবিক সহায়তায় জাপান বাংলাদেশের পাশে থাকবে।

তিনি আরও বলেন, মিয়ানমারের উপর আন্তর্জাতিক চাপ বৃদ্ধিতে জাপান কাজ করে যাচ্ছে।

সিপিএ চেয়ারম্যান বলেন, বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের যথাসাধ্য মানবিক সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে। তিনি এ সময় সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র সফরে জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেজ ও সাবেক মহাসচিব এবং এ্যাডভাইজরি কমিটি অন রাখাইন স্টেট এর চেয়ারম্যান কফি আনান এর সাথে তার রোহিঙ্গা ইস্যুতে ফলপ্রসূ আলোচনার কথা উল্লেখ করেন।

তিনি জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উত্থাপিত পাঁচ দফা অনুযায়ী রোহিঙ্গাদের তাদের নিজ দেশে স্থায়ী প্রত্যাবর্তন নিশ্চিত করতে মিয়ানমারের উপর চাপ অব্যাহত রাখার জন্য বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহবান জানান।

এ সময় সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর উপস্থিত ছিলেন।

মৈত্রী/ এএ

Banner