বান্দরবানে মতবিনিময় সভায় নৌকা প্রার্থী একেএম জাহাঙ্গীর

মোহাম্মদ আলী, বান্দরবান প্রতিনিধি
প্রকাশ: বুধবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ সময়- ৯:৪৯ পুর্বাহ্ন

motobenimoy pic

বান্দরবান : ১২ ফেব্রুয়ারী বেলা ১২টায় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী এ কে এম জাহাঙ্গীর সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময় করেন। অনুষ্ঠান স্থলে বান্দরবানের সকল সংবাদকর্মী উপস্থিত ছিলেন। একে এম জাহাঙ্গীর একজন পেশায় সংবাদকর্মী। তিনি ইতিপূর্বে বান্দরবান প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক দায়িত্ব পালন করে ছিলেন। সিনিয়র সংবাদকর্মীদের তালিকায় তিনি অন্যতম। রাজনৈতিক জীবনে তিনি আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। সর্বশেষ তিনি জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি পদে দায়িত্ব পান। মানবতার ফেরিওয়ালা একেএম জাহাঙ্গীর রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি নামক আন্তর্জাতিক সংস্থায় বান্দরবান জেলায় সেক্রেটারী পদে দায়িত্ব পালন করছেন। যে কোন প্রাকৃতিক দূর্যোগ কিংবা মানবিক সংকটে সীমান্তে সহ পুরো জেলায় তার পদচারণা রয়েছে।

ছাত্র জীবন থেকেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শে লালিত বাংলাদেশ ছাত্রলীগের একনিষ্ঠ কর্মী হিসেবে রাজনীতিতে পদার্পন শুরু হয় তার। ১৯৮৪ সালে স্বৈরশাসক এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে কারাবরণ করতে হয়েছে বান্দরবানে দলের ক্রান্তিলগ্নে দীর্ঘদিন কলেজ ছাত্রলীগে নেতৃত্ব দিয়ে সু-সংগঠিত করেছেন বান্দরবান জেলা ছাত্রলীগকে। তিনি বান্দরবান সরকারী কলেজের ছাত্রলীগের প্যানেলের জি.এস ছিলেন। জেলা আওয়ামীলীগের প্রথম প্রচার সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। পরে তিনি জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বাংলাদেশ কৃষকলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য। বান্দরবান জেলা কৃষক লীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। জাতীয় ও স্থানীয় পর্যায়ে সরকারি ও বেসরকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করে তার সুনাম অক্ষুন্ন রেখেছেন। তিনি বান্দরবান জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সদস্য। বান্দরবান জেলা কমিউনিটি পুলিশের সাবেক প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ কমিটির সদস্য। তিনি বান্দরবান জেলা কল্যাণ ট্রাষ্টের আজীবন সদস্য ও ট্রেজারার হিসাবে দায়িত্বরত আছেন। তিনি বিআরটিএ বান্দরবান জেলা কমিটিতে দায়িত্ব পালন করছেন। বান্দরবান জেলা ক্রীড়া সংস্থা নির্বাচিত সাবেক সদস্য হিসেবে ৮ বছর দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বান্দরবান জেলা অফিসার ক্লাব ও জেলা ডায়াবেটিক সমিতির আজীবন সদস্য। বান্দরবান জেলা অন্ধ কল্যাণ সমিতি, জেলা রাইফেলস্ ক্লাবের সদস্য। বান্দরবান গোরস্থান মসজিদ পরিচালনা কমিটির সহ সভাপতি। শহর মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি। রোটারী ক্লাব অব বান্দরবানের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। বেসরকারী সংস্থা কথওয়াইন এর চেয়ারম্যান। বান্দরবান জেলা টিম্বার মার্চেন্ট এসোসিয়েশন এর সেক্রেটারী পদে দায়িত্বরত। বান্দরবান রাবার বাগান মালিক সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য। শহর সমাজ সেবা কমিটির আজীবন সদস্য। বান্দরবান জেলা প্রবীন হিতৈষী সমিতির আজীবন সদস্য। ঢাকা ফুয়াং ক্লাব এর আজীবন সদস্য। ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান বান্দরবান ইসলামী শিক্ষা কেন্দ্রের সেক্রেটারী। এসবিসিসিআই সাধারণ পরিষদের সদস্য। বান্দরবান জেলা চেম্বার অব কমার্স ইন্ডাষ্ট্রিজ এর পরিচালক হিসেবে দায়িত্বরত। বান্দরবান জেলার স্কাউটস্ এর সাবেক কমিশনার। বান্দরবান জেলা মুক্ত রোভার স্কাউটস্ এর সেক্রেটারী এবং বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন এর সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

বিদেশ ভ্রমণে তার রয়েছে প্রচুর অভিজ্ঞতা, তিনি ইতিপূর্বে মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, শ্রীলংকা, ইন্ডিয়া, মায়ানমার, নেপাল, ফিলিফাইন, চীন, সৌদিআরবে সরকারী সফর করেন।

এদিকে একজন পেশাদার সিনিয়র সংবাদকর্মী জনপ্রতিনিধি হয়ে বান্দরবানের উন্নয়নে পার্বত্য মন্ত্রীর হাতকে আরো শক্তিশালী করে এগিয়ে নিয়ে যেতে কাজ করে যাবেন বলে এমনটাই সকলের কাছে ধারণা। তবে সিনিয়র সাংবাদিক এবার নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন, আওয়ামীলীগে ও যেমন আনন্দের বন্যা, তেমনি সকল সংবাদকর্মীদের মুখে হাসি দেখা যাচ্ছে। হয়তোবা সাধারণ জনগণের সুখ দুঃখের কথা শোনা এ মানুষটি এবারে সংবাদকর্মীদের আরো কাছে ঠেনে নিবেন এমনটাই প্রত্যাশা সকলের।

১৯৮৩ সাল থেকে প্রিন্টিং মিডিয়ায় সাংবাদিকতা ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাথে ২৮ বছর কাজ করার অভিজ্ঞতা। এর মধ্যে দৈনিক জনকন্ঠ, দৈনিক আজাদী, দৈনিক পূর্বকোণ, দৈনিক গিরিদর্পন, দৈনিক নতুন বাংলাদেশ, দৈনিক যুগরবি এবং টেলিভিশন চ্যানেল ইটিভি অন্যতম।

মৈত্রী/এফকেএ/এএ

Banner