আলীকদমে পদত্যাগী চেয়ারম্যান ও প্রার্থীর বিরুদ্ধে মামলা

মো. নুরুল করিম আরমান, লামা (বান্দরবান) প্রতিনিধি
প্রকাশ: রবিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ সময়- ৯:৩২ পুর্বাহ্ন

বান্দরবান

বান্দরবান : প্যানেল চেয়ারম্যান-১ কে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব না দেয়ায় আলীকদম উপজেলা সদর ইউনিয়নের পদত্যাগী চেয়ারম্যানসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে কারণ দর্শানোর নোটিশ জারি করেছে বান্দরবান জেলা যুগ্ম জজ আদালত। যুগ্ম জেলা জজ নিশাত সুলতানার আদালত এ আদেশ দেন। বুধবার দায়ের করা মামলার বিবাদীরা হলেন- পদত্যাগী চেয়ারম্যান জামাল উদ্দিন চৌধুরী, ওয়ার্ড সদস্য আব্দুল মুবিন, নির্বাহী অফিসার মো. নাজিমুল হায়দার এবং জেলা প্রশাসক দাউদুল ইসলাম (যার মামলা নং-৩/১৯)।

মামলা সূত্রে জানা যায়, আলীকদম সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জামাল উদ্দিন চৌধুরী আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হওয়ায় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ করেন। আলীকদম নির্বাহী অফিসার পদত্যাগপত্রটি গ্রহণ করেন। কিন্তু পদত্যাগের সময় প্যানেল চেয়ারম্যান-১ আবদুল মতিনকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব বুঝিয়ে না দিয়ে নিয়ম বহির্ভূতভাবে গত রোববার পরিষদের ১নং ওয়ার্ড সদস্য আব্দুল মুবিনকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব হস্তান্তর করেন। প্যানেল চেয়ারম্যান ১, ২ এবং ৩ জনকে বাদ দিয়ে আইন বহির্ভূতভাবে এটি করা হয়েছে। তাই প্যানেল চেয়ারম্যান-১ আবদুল মতিন বাদী হয়ে চার জনের বিরুদ্ধে বান্দরবান যুগ্ম জেলা জজ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে বিবাদীদের নোটিশ প্রাপ্তির আগামী ১ সপ্তাহের মধ্যে কারণ দর্শানোর আদেশ দেন।

মামলার বাদী আবদুল মতিন বলেন, আমি ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যদের ভোটে নির্বাচিত প্যানেল চেয়ারম্যান-১। আমি ছাড়াও আরো দুজন প্যানেল চেয়ারম্যান রয়েছেন। কিন্তু পদত্যাগকারী চেয়ারম্যান জামাল উদ্দিন চৌধুরী প্যানেল চেয়ারম্যানের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর না করে নিয়ম বহির্ভূতভাবে তারই আশির্বাদপুষ্ট ১নং ওয়ার্ড সদস্য আব্দুল মুবিনের কাছে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব হস্তান্তর করেন। এটি সম্পূর্ণ ইউনিয়ন পরিষদ আইন বহির্ভূূত। প্যানেল চেয়ারম্যান হিসাবে নিয়ম তান্ত্রিকভাবে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব বুঝে পেতে আদালতে মামলা করেছি।

এ বিষয়ে পদত্যাগকারী আলীকদম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জামাল উদ্দিন চৌধুরী সাংবাদিকদের জানান, আগের প্যানেল চেয়ারম্যানদের বিরুদ্ধে পরিষদের সদস্যরা অনাস্থা দিয়ে নতুনভাবে প্যানেল চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেছে। বিধায় নতুন প্যানেল চেয়ারম্যানের কাছেই আমি দায়িত্ব হস্তান্তর করেছি। আইন অমান্য হলে দাবিদার ব্যক্তিকেই ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেয়া হলে কোনো সমস্যা নেই বলেও জানান তিনি।

পদত্যাগী চেয়ারম্যানসহ চার জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে আলীকদম নির্বাহী অফিসার মো: নাজিমুল হায়দার বলেন, নিয়ম অনুযায়ী চেয়ারম্যান কোনো কারণে পদত্যাগ করলে প্যানেল চেয়ারম্যান ১, ২ এবং ৩ জনের যে কোনো একজনকে দায়িত্ব হস্তান্তর করতে হবে। প্যানেলের বাইরে কাউক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেয়ার কোনো সুযোগ নেই। কিন্তু আলীকদম ইউনিয়ন পরিষদে আইন বহির্ভূতভাবে সেটিই করা হয়েছে। তবে দায়িত্ব হস্তান্তরের সঙ্গে আমার এবং জেলা প্রশাসক মহোদয়ের কোনো সম্পর্ক নেই। এ বিষয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হিসাবে জেলা প্রশাসকের সঙ্গে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মৈত্রী/এফকেএ/এএ

Banner