বান্দরবানে কৃষি যন্ত্রপাতি ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সামগ্রী বিতরণ করলেন পার্বত্য মন্ত্রী

মোহাম্মদ আলী, বান্দরবান প্রতিনিধি
প্রকাশ: শনিবার, ৬ জুলাই ২০১৯ সময়- ৯:৫৬ অপরাহ্ন

montry Betoron Pic-2

বান্দবান : পার্বত্য জেলা পরিষদ ও ইউএনডিপির সহায়তায় বান্দরবান পার্বত্য জেলার ইউনিয়ন পর্যায়ে নারীদের ও গরীব কৃষকদের আর্থ সামাজিক অবস্থার উন্নয়নে বিভিন্ন ফলজ চারা, গাভী-বাছুর, মাছের পোনা, কপি চারা, পাওয়ার টেইলারসহ কৃষি যন্ত্রপাতি, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সাংস্কৃতিক বিকাশে বাদ্য যন্ত্র ও ক্রীড়া সামগ্রী বিতরণ করেন পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।

গতকাল দুপুরে বান্দরবান জেলা পরিষদ প্রাঙ্গনে এসব সামগ্রী বিতরণ করা হয়। বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা এর সভাপতিত্বে বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সুদত্ত চাকমা, জেলা প্রশাসক মো. দাউদুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. কামরুজ্জামান, পৌর মেয়র মোহাম্মদ ইসলাম বেবী, জেলা পরিষদের মূখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম কাউসার হোসাইন, ইউএনডিপির প্রজেক্ট ম্যানেজার প্রসেঞ্জিত চাকমা, বান্দরবান এরিয়া ম্যানেজার এ্যাডভোকেট খুশি রায় ত্রিপুরা।

এসময় বান্দরবানের বিভিন্ন উপজেলার ইউনিয়ন পর্যায়ের ৩ শত ৪২ জন কৃষকদের মাঝে ৪০ হাজার ৯ শত ৪০টি বিভিন্ন মিশ্র ফলজ চারা আম্রপালি, নারকেল, লিচু চায়না-৩, আপেল কুল, তেজপাতা, দারুচিনি, লেবু কলম্বো, লটকন, জলপাই, আমলকী ও আমরার চারা বিতরণ করা হয়।
অন্যদিকে সদর উপজেলার রাজবিলা, আলীকদম উপজেলা, রোয়াংছড়ি ও রুমা উপজেলার ১শত ৩০টি পাড়ায় ৯১টি পাওয়ার টিলার, ৯১টি পাম্প মেশিন বিতরণ করা হয়।

এছাড়াও এলাকার ৬০জন মৎস্যজীবিদের মাঝে ৩০০কেজি বিভিন্ন প্রজাতির মাছের পোনা বিতরণসহ ১৫টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ১৫টি সাংস্কৃতিক ক্রীড়া সংগঠন কে বিভিন্ন ধরনের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানে অন্যাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ক্য সা প্রু মারমা, সদস্য লক্ষিপদ দাশ, সদস্য মোজাম্মেল হক বাহাদুর, সদস্য সিং ইয়ং ম্রো, সদস্য কাঞ্চন জয় তংচঙ্গ্যা, সদস্য ফিলিপ ত্রিপুরা, সদস্য ম্রাসা খেয়াং, মহিলা সদস্য তিং তিং ম্যা, মহিলা সদস্য ফাতেমা পারুল, নতুন সদস্য ক্যনে ওয়ান চাক সহ বান্দরবানের ৭টি উপজেলার ইউনিয়ন পর্যায়ে দুর্গম গ্রামের উপকার ভোগি কৃষকরা উপস্থিত ছিলেন। পরে সভাপতি উপস্থিত সকলে ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষনা করেন।

মৈত্রী/এফকেএ/এএ

Banner