ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতা তৈরীতে রাজধানীতে সচেতনতা কর্মসূচি

ডেস্ক নিউজ, দৈনিক সচিত্র মৈত্রী
প্রকাশ: সোমবার, ২৬ অগাষ্ট ২০১৯ সময়- ১:৪৭ অপরাহ্ন

Pic 1

ঢাকা : সাম্প্রতিক সময়ের দেশের অন্যতম বড় সমস্যা ডেঙ্গু প্রতিরোধে জনসচেতনতা তৈরীর লক্ষ্যে সম্প্রতি রাজধানীর গুলশান ২ পার্কে একটি সচেতনতা কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে। ‘জমা পানির ক্ষমা নাই’ শ্লোগানে “ডেটল হারপিক পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ” ও আরটিভির যৌথ উদ্যোগে পরিচালিত এই কর্মসূচি থেকে দেশে ডেঙ্গুর প্রকোপ কমাতে প্রত্যেককে নিজ নিজ আঙিনা ও বাড়ির আশপাশ পরিচ্ছন্ন রাখার আহ্বান জানানো হয়েছে। এবারের কর্মসূচির প্রতিপাদ্য ছিল ‘ঘর পরিষ্কার হলে, দেশ পরিষ্কার হবে, ডেঙ্গু থেকে মুক্তি পাবে’। একটি মানববন্ধনের আয়োজন করা হয় এবং পরিশেষে একটি শোভাযাত্রা বের করা হয়।

এবারের কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন। অন্যান্যদের মধ্যে অংশ নেন রেকিট বেনকিজার বাংলাদেশ লিমিটেডের মার্কেটিং ম্যানেজার সালাউদ্দিন আহমেদ তারেক ও এক্সটারনাল অ্যাফেয়ার্স ম্যানেজার মো. রাকিব উদ্দিন; আরটিভির সিইও আশিক রহমান; বেঙ্গল গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ভাইস চেয়ারম্যান মো. জসিম উদ্দিন; প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইলিয়াস মৃধা; গুলসান রানার্স সোসাইটির প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ সাখাওয়াত ও ট্রেজারার আব্দুল্লাহ আল জহির; এজে গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আনোয়ার হোসেন চৌধুরী এবং এক্সপ্রেশানস লি:-এর সৈয়দ আপন আহসানসহ আরও অনেকে। গুলশান রানার্স ও গুলশান সোসাইটির সদস্যরাও কর্মসূচিতে অংশ নেন।

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেন, “আমাদের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় যেভাবে নির্দেশনা দিয়েছে এবং আমাদের সিটি কর্পোরেশন যেভাবে কাজ করছে, আপনারা যেভাবে এগিয়ে এসেছেন তা সত্যিই প্রশংসনীয়। এটি শুধু সরকারের নয়, বরং সম্মিলিত একটি সমস্যা। আমি বিশ্বাস করি, আমরা নিজ নিজ অবস্থান থেকে সবাই এগিয়ে আসলে খুব দ্রুতই আমরা এ সমস্যা উত্তরণ করতে সক্ষম হবো এবং সচেতনতা বৃদ্ধিতে গৃহীত উদ্যোগের জন্য আপনাদের সকলকে ধন্যবাদ জানাই”।

আরটিভি’র সিইও আশিক রহমান বলেন, “আসেন আমরা সবাই এক হয়ে কাজ করি। সচেতনতার এই বার্তা সবার মধ্যে ছড়িয়ে দিয়ে সকলকে নিয়ে কাজে নামতে পারলেই খুব দ্রুত এই সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যাবে বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস।”

রেকিট বেনকিজার বাংলাদেশ লিমিটেডের মার্কেটিং ম্যানেজার সালাউদ্দিন আহমেদ তারেক বলেন, “পানির অপর নাম জীবন তবে জমে থাকা পানির অপর নাম মৃত্যুও বলা যেতে পারে। দেশের আনাচে কানাচে কোন অংশেই যেন পানি জমে থাকতে না পারে সেই বিষয়ে সকলকে সচেতন করতেই আজকের এই মানববন্ধন। জমে থাকা পানি যথাযথভাবে পরিষ্কার করে এডিস মশার বংশ সম্পূর্ণভাবে নির্মূল করা সম্ভব বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস। তাই জাতীয় এই সমস্যা রোধে আমাদের প্রত্যেককেই এই বিষয়টি নিয়ে সচেতন হয়ে এগিয়ে আসতে হবে”।

মৈত্রী/এফকেএ/এএ

Banner