জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল

ডেস্ক নিউজ, দৈনিক সচিত্র মৈত্রী
প্রকাশ: বুধবার, ২৮ অগাষ্ট ২০১৯ সময়- ১১:০৭ অপরাহ্ন

CP3A7847ঢাকা : স্বাধীনতার স্থপতি, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদত বার্ষিকী এবং জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আজ কৃষিবিদ ইন্সটিটিউট (কেআইবিসি) এর থ্রিডি সেমিনার হলে দোয়া ও আলোচনা সভা আয়োজন করে বেসিস।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি এবং আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব এম. এ. মান্নান এমপি, মাননীয় পরিকল্পনা মন্ত্রী, জনাব জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী, জনাব এ.কে.এম রহমতুল্লাহ এমপি চেয়্যারম্যান, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। আরো উপস্থিত ছিলেন জনাব এন এম জিয়াউল আলম, সম্মানিত সচিব, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি জাদুঘর-এর সদস্য সচিব ও কিউরেটর জনাব মো. নজরুল ইসলাম খান।

বেসিস এর পক্ষে উপস্থিত ছিলেন বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর, জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ফারহানা এ রহমান, সহ-সভাপতি (প্রশাসন) শোয়েব আহমেদ মাসুদ, সহ-সভাপতি (অর্থ) মুশফিকুর রহমান, বেসিস পরিচালক জনাব তামজিদ সিদ্দিক ¯পন্দন এবং বেসিস পরিচালক জনাব দিদারুল আলম।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন বেসিস সভাপতি। তিনি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু বলেছেন “আমার সবচেয়ে বড় শক্তি আমার দেশের মানুষকে ভালবাসি, সবচেয়ে বড় দুর্বলতা আমি তাদেরকে খুব বেশী ভালবাসি।” সারা জীবন বঙ্গবন্ধু মানুষকে ভালোবেসেছেন, মানুষের জন্যে কাজ করেছেন। আজ তাঁর সুযোগ্য কন্যা, দেশনেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কাজ এগিয়ে চলেছে। এ ক্ষেত্রে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সাথে একযোগে কাজ করছে বেসিস। আজীবন মানুষের তরে কাজ করে যাওয়া জাতির জনক-কে আজ আমরা বেসিসের পক্ষ থেকে বিনম্র শ্রদ্ধা জানাই এবং তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি।

অনুষ্ঠানে মাননীয় পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবনাদর্শকে ধারণ করে সবাই মিলে একটি অসাম্প্রদায়িক, ক্ষুধা ও দারির্দ্র্যমুক্ত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তুলতে হবে। শোকাবহ আগস্টে এই হোক আমাদের অঙ্গীকার।

মাননীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী বলেন, ১৯৭৪ সালেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর দূরদর্শী সিদ্ধান্তে বাংলাদেশ যোগ দেয় আন্তর্জাতিক টেলিকেমিউনিকেশন ইউনিয়নে (আইটিইউ)। তারই সিদ্ধান্তে বেতবুনিয়ায় স্থাপন করা হয় ভূ-উপগ্রহ কেন্দ্র। বর্তমানে বঙ্গবন্ধুর কন্যা তার অসমাপ্ত কাজগুলো শেষ করার জন্য নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন। গড়ছেন স্বপ্নের ডিজিটাল বাংলাদেশ।

জনাব এ.কে.এম রহমতুল্লাহ এমপি চেয়্যারম্যান, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটি বলেন, বঙ্গবন্ধু কোনো নির্দিষ্ট দল, গোষ্ঠী বা দেশের নন, তিনি বিশ্বের একজন অবিসংবাদিত নেতা।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন সম্মানিত তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব জনাব এন এম জিয়াউল আলম জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মৃতি জাদুঘর-এর সদস্য সচিব ও কিউরেটর জনাব মো. নজরুল ইসলাম খান। অনুষ্ঠানে বেসিস এর সদস্য প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি, বেসিস স্টুডেন্টস ফোরামের সদস্য, গণমাধ্যমদের সম্মানিত সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সবশেষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া মাহফিলের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শেষ হয়।

মৈত্রী/এফকেএ/এএ

Banner