বান্দরবানে দাবি পূরণের লক্ষ্যে প্রাথমিক শিক্ষকদের স্বারকলিপি প্রদান

রশিদ আহামদ, নিজস্ব প্রতিবেদক

বান্দরবান : শিক্ষকদের দাবি পূরণের লক্ষ্যে বান্দরবানে জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক শিক্ষকদের পক্ষ থেকে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে।

২৩ আগস্ট রবিবার দুপুরে জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক শিক্ষা মহাজোটের আয়োজনে বিভিন্ন জেলা-উপজেলা থেকে আগত শিক্ষক, শিক্ষিকাদের উপস্থিতিতে বান্দরবান জেলা প্রশাসক জেলা প্রশাসক মো. দাউদুল ইসলামকে তাদের দাবি পূরণের জন্য এই স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

বান্দরবান জাতীয়করণকৃত শিক্ষক মহা জোটের আহ্বায়ক মো. হাফিজুর রহমান এর উপস্থিতিতে স্মারকলিপি প্রদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন জাতীয়করণকৃত শিক্ষক মহাজোট বান্দরবান জেলা শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক বাদল কান্তি ধর, মো. মুজিবুর রহমান, মো. আব্দুল মুবিন, মোহাম্মদ ইউনুস, এসএম মুহিবুল্লাহ করিম, নুরুল কবির সহ অন্যান্য শিক্ষক শিক্ষিকা বৃন্দ।

উল্লেখ্য যে জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতন নির্ধারণের জন্য চাকরিকাল গণনা ও অন্যান্য সুবিধাদির প্রাপ্যতায় ১২ আগস্ট অর্থ মন্ত্রণালয় কর্তৃক জারীকৃত পত্রটি প্রত্যাহারের দাবিতে বান্দরবান জেলা প্রশাসক বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেছেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশের উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির লক্ষ্যে ১৯৭৩ সালে ৩৬১৬৫ টি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কর্মরত শিক্ষকদের চাকরি জাতীয়করণ করেছিলেন। আর তারই ধারাবাহিকতায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৩ সালের ৯ জানুয়ারি ২৬১৯৩ কি বেসরকারি বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের এর জাতীয়করণের আয়ত্তে আনে এবং ২০১৪ সালের ৯ মার্চ শিক্ষকদের দুই ধাপে বেতন বৃদ্ধির ঘোষণা করেন। সেজন্য সকল শিক্ষক সমাজ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে অত্যন্ত কৃতজ্ঞ। কিন্তু বর্তমানে সেই সকল জাতীয়করণকৃত শিক্ষকদের জ্যেষ্ঠতা, পদোন্নতি, সিলেকশন গ্রেড, ও প্রযোজ্য টাইমস্কেলের প্রাপ্ততার কথা থাকলেও তা প্রদান করা হচ্ছে না। এছাড়াও জাতীয়করণকৃত শিক্ষকদের বর্তমান অবস্থা ও প্রশাসন কর্তৃক জারীকৃত পত্রে সৃষ্ট জটিলতা দেশে শিক্ষকদের মাঝে দারুন ক্ষোভ সৃষ্টি করেছে।

তাই শিক্ষকদের দাবি এ সকল সমস্যা নিরসনের জন্য বর্তমানে ১২ আগস্ট ২০২০ তারিখে অর্থ মন্ত্রণালয় কর্তৃক জারীকৃত টাইমস্কেলের পত্র বাতিল করে শিক্ষকদের সমস্যা নিরসন করা হোক।

মৈত্রী/এফকেএ/এএ