বৈশ্বিক উষ্ণতায় হুমকির মুখে হিমালয়ের হিমবাহ

জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে ক্রমেই হুমকির মুখে পড়ছে হিমালয় ও হিন্দু কুশ পর্বতের হিমবাহগুলো। সম্প্রতি প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এ তথ্য। প্রতিবেদনে বলা হয়, যদি কার্বন ডাই-অক্সাইড নিঃসরণ দ্রুত কমিয়ে আনা না যায়, তবে এ বিশালাকায় বরফক্ষেত্র দুটির দুই-তৃতীয়াংশ উধাও হয়ে যেতে পারে। খবর বিবিসি।

যদি পৃথিবীর তাপমাত্রা বৃদ্ধি ১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে সীমিত রাখা যায়, তার পরও এক-তৃতীয়াংশ বরফ নিঃশেষ হয়ে যাবে।

এ হিমবাহগুলোর ওপর নির্ভর করছে আটটি ভিন্ন দেশের ২৫ কোটি মানুষ। তাদের পানির প্রধান উৎস এ হিমবাহগুলো। পৃথিবীর সর্বোচ্চ শিখর কেটু এবং মাউন্ট এভারেস্টও হিন্দু কুশ ও হিমালয়ের অংশ। মেরু অঞ্চল বাদে পৃথিবীর যেকোনো জায়গার চেয়ে এ অঞ্চলে বেশি বরফ রয়েছে। বিজ্ঞানীরা বলছেন, বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারণে এ বরফক্ষেত্রগুলো অর্ধশতাব্দীরও কম সময়ের মধ্যে নিছক পাথর খণ্ডে রূপ নিতে পারে। আগামী কয়েক দশকে উষ্ণতা ও দূষণ বৃদ্ধির কারণে বরফের গলন আরো বেশি ত্বরান্বিত হতে পারে।

বৈশ্বিক তাপমাত্রা ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বৃদ্ধি পেলে ২১০০ সালের মধ্যে অর্ধেক হিমবাহ বিলীন হয়ে যাবে। যদি জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয় এবং এ শতাব্দীর শেষে উষ্ণতা বৃদ্ধি ১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে সীমিত রাখা যায়, তার পরও হিমবাহের ৩৬ শতাংশ বিলীন হয়ে যাবে।