বাঙালি সংস্কৃতি ধারণ করে সবাইকে এগিয়ে যেতে হবে : রেলমন্ত্রী

লিগ্যালডেস্ক : রেলমন্ত্রী এডভোকেট মো.নূরুল ইসলাম সুজন এমপি, বাঙালি সংস্কৃতি ধারণ করে নতুন প্রজন্মকে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।
তিনি আজ শুক্রবার দুপুরে পঞ্চগড় জেলা শহরের ঐতিহ্যবাহী পঞ্চগড় মকবুলার রহমান সরকারি কলেজ চত্বরে আয়োজিত দু’দিনব্যাপী পিঠা উৎসবের উদ্বোধনী ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।
পঞ্চগড় মকবুলার রহমান সরকারি কলেজ কর্তৃপক্ষ ‘সবারে করি আহবান-এসো উৎসুক চিত্ত, এসো আনন্দিত প্রাণ’ শ্লোগানকে সামনে রেখে প্রতিষ্ঠানটির বটমূল চত্বরে পিঠা উৎসবের আয়োজন করেছে। সকালে দলীয় সংঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়।
এবারের পিঠা উৎসবে ২৫ টির অধিক স্টলে বাহারী পিঠার বিকিকিনি চলছে। স্টলগুলোতে পঞ্চগড়ের লোকজ পিঠার ব্যাতিক্রম উপস্থাপন লক্ষ্য করা গেছে।
স্টলগুলোতে বাহারি পিঠা-পুলির রকমারি প্রদর্শনী ও বিকিকিনি চলছে। কলেজের শিক্ষার্থীরা প্রতিযোগিতামূলকভাবে দৃষ্টিনন্দন করে পিঠার স্টলগুলো সাজিয়েছেন এবং নামও দিয়েছেন সুন্দর সুন্দর।
অমরাবতী, আবহমান, রংধনু, পৌষপার্বন, পিঠাঞ্জলি, বিপ্রতীব, বর্ণালীস্বপ্ন ছোয়া, রুপশ্রী ফাল্গুনী কুটুমবাড়ী, রসেরহাড়ি, রুপসী বাংলাসহ নানান নামে শিক্ষার্থীরা দেশীয় পিঠার স্টল দিয়েছে।
এছাড়া শিক্ষার্থীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সারাদেশের মতো পঞ্চগড় জেলার ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির সঙ্গে পিঠার সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে জেলার মানুষের নিবিড় আনন্দ।
আর সেই আনন্দকে সম্মিলিতভাবে উৎসব মুখর পরিবেশে উদযাপন করছে এই জেলার মানুষ। পিঠা উৎসবকে কেন্দ্র করে তরুন তরণীদের পদচারনায় মুখরিত হয়ে উঠেছে কলেজ ক্যাম্পাস।
সেই সঙ্গে দর্শকরা উপভোগ করছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।
জনাকীর্ণ মাঠের এই উৎসব যেন মিশে গেছে বোধে ও মননে। আনন্দে মুখরিত কলেজ ক্যাম্পাস যেন তারুণ্যের রঙ্গে রঙ্গিন।
মেলার উদ্বোধনের পর মন্ত্রী অতিথিদের সঙ্গে নিয়ে বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন।
কলেজের অধ্যক্ষ মো. দেলওয়ার হোসেন প্রধানের সভাপতিত্বে কলেজের বটমূলে আয়োজিত অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে রংপুর অঞ্চলের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. মজিদ আলী, পঞ্চগড়ের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এহতেশাম রেজা, ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার নাইমুল হাসান, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার সাদাত স¤্রাট ও উৎসবের আহবায়ক উপাধ্যক্ষ নাজমুল হুদা বক্তব্য দেন।
অনুষ্ঠানে রেল নুরুল ইসলাম সুজন বলেন, পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা একটি সম্ভাবনাময় স্থলবন্দর। পঞ্চগড় থেকে বাংলাবান্ধা হয়ে ভারতের শিলিগুড়ি পর্যন্ত রেল লাইন সম্প্রসারণ করা হবে। যাতে করে ভবিষ্যতে ভারত, নেপাল, ভুটানের সঙ্গে আরো যোগাযোগ বৃদ্ধি পায়।
তিনি উক্ত কলেজের শিক্ষার্থীদের পরিবহণের জন্য বাস, কলেজের সীমানা প্রাচীর নির্মাণ ও আরো কয়েকটি বিষয়ে অর্নাস কোর্স চালুর বিষয়ে আশ্বাস দেন। পঞ্চগড় শহরে বাইপাস সড়ক নির্মাণের বিষয়টি নিয়ে চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে।