গুগল ট্রান্সলেট অ্যাপ দিয়ে ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে!

ফিশিং সাইটের প্রকৃত ডোমেইন গোপন করতে গুগল ট্রান্সলেট অ্যাপ ব্যবহার করছে সাইবার অপরাধীরা। এ কৌশল কাজে লাগিয়ে গুগল ট্রান্সলেট অ্যাপ ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে। সম্প্রতি সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা গুগল ট্রান্সলেটরের মাধ্যমে গ্রাহক তথ্য হাতিয়ে নেয়ার এ নতুন পদ্ধতি শনাক্ত করেন। খবর জেডডিনেট।

বৈশ্বিক তথ্যপ্রযুক্তি খাতে সাইবার নিরাপত্তার বিষয়টি এখন সর্বোচ্চ গুরুত্ব পাচ্ছে। এমন কোনো খাত কিংবা প্রতিষ্ঠান নেই, যারা সাইবার হামলার শিকার হচ্ছে না। বিশ্বব্যাপী সাইবার নিরাপত্তা জোরদারের সঙ্গে তাল মিলিয়ে কৌশল পরিবর্তন করছে সাইবার অপরাধীরা এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের তথ্য হাতিয়ে নিচ্ছে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে আগাম ব্যবস্থা নিয়েও সাইবার হামলা থেকে রক্ষা মিলছে না। খোদ তথ্যপ্রযুক্তি নিরাপত্তাদাতা কোম্পানিগুলোতেও সাইবার হামলার ঘটনা ঘটছে।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, গুগল ট্রান্সলেটের ফিশিং মেইল হিসাবে ওয়েবপেজের ভুয়া ইউনিফরম সোর্স লোকেটর (ইউআরএল) পাঠাতে পারে সাইবার অপরাধীরা। ওই ইউআরএলে ক্লিক করলে গুগল ট্রান্সলেটর পেজে চলে যান ব্যবহারকারী। সেখানে গুগল ট্রান্সলেট টুল বারযুক্ত ফিশিং পেজ লোড হয়। সর্বশেষ এখান থেকে গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নেয়া হয়।

সাইবার নিরাপত্তা বিশ্লেষকদের মতে, মোবাইল ডিভাইস থেকে গুগল ট্রান্সলেটরে ঢোকা ব্যবহারকারী ইউআরএল পুরোপুরি দেখতে পায় না বলে তাদের বিপদে পড়ার ঝুঁকি বেশি। গুগল ট্রান্সলেটর ইউআরএলে ঢোকার আগে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এছাড়া ট্রান্সলেটরে কোনো ক্ষতিকর লিংক দেখলে সে বিষয়ে রিপোর্ট করার পরামর্শ দিয়েছে গুগল।

গুগল ট্রান্সলেট অ্যাপে বিভিন্ন ভাষার অনুবাদ করতে পারেন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা। তবে জনপ্রিয় এ অ্যাপ এখন ফিশিং আক্রমণের অন্যতম হাতিয়ার হয়ে উঠেছে। গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহারকারীরা ঝুঁকিতে রয়েছেন বলা হলেও এখন পর্যন্ত কারো ব্যক্তিগত তথ্য বেহাত হয়েছে কিনা, সে বিষয়ে কোনো তথ্য প্রকাশ করেনি সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা।

গুগলের এক মুখপাত্র জানান, বিভিন্ন অনলাইন সেবায় ফিশিং আক্রমণ বেড়েছে। আমরা গুগল ট্রান্সলেটরকে কেন্দ্র করে পাঠানো ফিশিং ই-মেইল নিয়মিত ব্লক করে আসছি। সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞদের দাবি পরীক্ষা করে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।