জমজমাট বই মেলা

ঢাকা, কেবল বই বেচাকেনা নয় বই -এর আলোচনা ও মোড়ক উন্মোচণ অনুষ্ঠানে বই প্রেমিদের ভিড় এক বাড়তি মাত্রার সৃষ্টি করেছে অমর একুশে গ্রন্থমেলায়। নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন ও লেখক বলছি মঞ্চ, বিভিন্ন টেলিভিশনের সরাসরি সম্প্রচার কর্ণার এবং মেলার মূলমঞ্চের অনুষ্ঠান প্রতিদিনই জমে উঠছে দর্শণার্থীদের পদচারণায়।
লেখক-সাহিত্যিকদের নিত্য নতুন বই নিয়ে এসব অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করছে বিজ্ঞ বক্তা ও শ্রোতারা। মেলায় প্রকাশিত নতুন বইগুলো সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্যও জানা যাচ্ছে এসব আলোচনা অনুষ্ঠান থেকে।
নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন মঞ্চে আজ অষ্ট্রেলিয়া প্রবাসী কবি বিমল সরকারের ‘এই সুখ এই দুঃখ’ শীর্ষক কবিতার বইয়ের মোড়ক উন্মোচণ করেন বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী। তিনি বলেন, ‘বইয়ের আলোচনা শোনায় এতো মানুষের জমায়েত দেখে ভাল লাগছে। মুক্তিযুদ্ধের ঐতিহাসিক আঙ্গিনা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বই নিয়ে কথা বলছি, সামনে শ্রোতার ভিড়, বইয়ের প্রতি আপনাদের ভালবাসায় আমি আনন্দিত।’
তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, এই উদ্যানে এসে মহান জাতির পিতার কথা মনে পড়ে গেল। ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ বঙ্গবন্ধু এখানেই স্বাধীণতার ঘোষণা দিয়েছিলেন, এই ইতিহাস সবারই জানা। যতদিন বাংলাদেশ থাকবে,ততদিন বঙ্গবন্ধু আমাদের প্রেরণার উৎস হয়ে থাকবেন।
একই মঞ্চে মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউল হকের লেখা মুক্তিযুদ্ধ বিয়ষক গ্রন্থ ‘শত মুক্তিযোদ্ধার বিজয় গাঁথা ’- শীর্ষক বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন মুক্তিযোদ্ধা ও সংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু। ‘লেখক বলছি’ মঞ্চে বিকেলে বক্তব্য দেন একুশে পদকপ্রাপ্ত কবি অসীম সাহা
আজ মেলায় ৯০টি নতুন বই প্রকাশ পেয়েছে। এ নিয়ে দশ দিনে মেলায় প্রকাশ পাওয়া নতুন বইয়ের সংখ্যা হচ্ছে ১ হাজার ৪৩০টি।
মেলার দশম দিনে আজ মূলমঞ্চে ‘কথাশিল্পী অমিয়ভূষণ মজুমদার : জন্মশতবর্ষ শ্রদ্ধাঞ্জলি’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন মহীবুল আজিজ। আলোচনায় অংশ নেন হোসেনউদ্দীন হোসেন, মাহবুব সাদিক ও হরিশংকর জলদাস। সভাপতিত্ব করেন কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন। সন্ধ্যায় ছিল কবিকণ্ঠে কবিতা পাঠ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।
আজও মেলায় দর্শণার্থীদের উপচে পড়া ভিড় ছিল। বই বিক্রিও হচ্ছে বেশ।