আরো নতুন তিন ব্যাংক, কোনটির মালিক কে?

বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সভায় নতুন তিনটি বেসরকারি ব্যাংকের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট ব্যাংকের সংখ্যা হল ৬২টি। নতুন অনুমোদন পাওয়া ব্যাংকগুলো কিছু আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করেই কার্যক্রম শুরু করবে।

ব্যাংক তিনটি হল- বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংক, পিপলস ব্যাংক এবং সিটিজেন ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক আবু ফরাহ মো. নাসের বলেন, ‘পর্ষদ সভায় সর্বসম্মতিক্রমে তিনটি ব্যাংক অনুমোদন দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে তাদের পেইড আপ ক্যাপিটাল (পরিশোধিত মূলধন) ৫০০ কোটি টাকা হতে হবে। এটিসহ প্রয়োজনীয় আরও শর্ত পূরণের পর তাদের লাইসেন্স দেওয়া হবে।’

আওয়ামী লীগ সরকারের টানা তিন মেয়াদে এ নিয়ে ১৪টি ব্যাংকের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বিশেষ আইনে গঠিত প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংককে গত বছর তফসিলি ব্যাংক হিসেবে অনুমোদন দেওয়া হয়।

বেঙ্গল ব্যাংকের উদ্যোক্তা বেঙ্গল গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ। আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য মোর্শেদ আলম এই গ্রুপের চেয়ারম্যান এবং প্রস্তাবিত ব্যাংকটির চেয়ারম্যান হলেন তার ছোট ভাই জসীম উদ্দিন।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের মা জাহানারা হকের নাম সিটিজেন ব্যাংকের চেয়ারম্যান হিসেবে প্রস্তাব করা হয়েছে।

পিপলস ব্যাংকটির আবেদনে প্রস্তাবিত চেয়ারম্যান ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী আওয়ামী লীগ নেতা এম এ কাশেম।

বর্তমানে দেশে তফসিলি ব্যাংক রয়েছে ৫৯টি। এর মধ্যে রাষ্ট্রায়ত্ত বাণিজ্যিক ব্যাংক ছয়টি ও বিশেষায়িত ব্যাংক তিনটি। এছাড়া বিদেশী ব্যাংক রয়েছে ৯টি। বিদায়ী বছরের শেষদিকে পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্টের ‘কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড’-এর চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়। ওই ব্যাংকসহ দেশে বেসরকারি ব্যাংকের সংখ্যা ৪১-এ দাঁড়ায়। নতুন তিনটি ব্যাংক চূড়ান্ত অনুমোদন পেলে দেশে বেসরকারি ব্যাংকের সংখ্যা দাঁড়াবে ৪৪। তখন সব মিলিয়ে দেশে তফসিলি ব্যাংকের সংখ্যা হবে ৬২।