স্বচ্ছতার প্রশ্নে আপোস নয়- শিক্ষামন্ত্রী

ঢাকা, লিগ্যাল ডেস্ক:
শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, আজকের শিক্ষার্থীরাই ভবিষ্যতে জাতিকে নেতৃত্ব দেবে। তাদের সঠিক মানুষরূপে গড়ে তোলার জন্যই আমরা সকল প্রচেষ্ঠা গ্রহন করেছি। গত ১০ বছরে শিক্ষাক্ষেত্রে অনেক অগ্রগতি হয়েছে। এ ভিতের উপর দাঁড়িয়ে সামনে এগিয়ে যেতে হবে।
শিক্ষামন্ত্রী রাজধানীর টিকাটুলিতে সেন্টাল উইমেন্স কলেজে নবনির্মিত শহীদ মিনার উদ্বোধন ও বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, সেন্টাল উইমেন্স কলেজের একটি বিরাট ঐতিহ্য রয়েছে। এর নামের সাথে বিরূপ কোন কিছু, অন্যায় কোন কিছু যাতে যুক্ত না হয়। অন্যায় কিছু হলে স্বচ্ছতা ও ন্যায় বিচারের ভিত্তিতে ব্যবস্থা নেয়া হবে। শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে স্বচ্ছতার প্রশ্নে কখনও আপোস করবেন না বলেও তিনি এসময় মন্তব্য করেন।
অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক হারুন-অর-রশিদ, সাবেক সচিব মাহমুদা শারমীন বেনু এবং কলেজের উপাধ্যক্ষ আফরোজা আক্তার।
শিক্ষা উপমন্ত্রীর সাথে ইউনিসেফ প্রতিনিধির সাক্ষাৎ
শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীর সাথে আজ সচিবালয়ে তাঁর অফিসকক্ষে বাংলাদেশে ইউনিসেফ রিপ্রেজেনেটটিভ এডোয়ার্ড বেইগবেদার (ঊফড়ঁধৎফ ইবরমনবফবৎ) সাক্ষাৎ করেন। এ সময় তার সাথে ইউনিসেফ শিক্ষা বিভাগের প্রধান পাওয়ান কুচিটা (চধধিহ কঁপরঃধ) উপস্থিত ছিলেন।
সাক্ষাৎকালে বাংলাদেশে শিক্ষা ব্যবস্থায় ইউনিসেফের বিভিন্ন সহযোগিতার বিষয়ে আলোচনা হয়। এ সময় শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, বেসরকারি শিল্প ও সেবা খাতের চাহিদা অনুযায়ী দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলা এবং নবীশ শ্রমিকদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সার্টিফিকেট প্রদানের ক্ষেত্রে ইউনিসেফ বাংলাদেশকে সহযোগিতা পারে। শিল্প ও সেবা খাতের প্রতিনিধিরাও নীতি প্রণয়নে পরামর্শ দিতে পারেন। তিনি বলেন, দক্ষ জনবল তৈরির লক্ষ্যে কারিগরি শিক্ষাকে জনপ্রিয় করতে হবে। দেশের তরুন জনগোষ্ঠীকে দক্ষ জনশক্তিতে রুপান্তর করতে উচ্চ শিক্ষার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন কারিগরি বিষয়ে প্রশিক্ষণ এবং ডিপ্লোমা প্রদানের ব্যবস্থা করতে উদ্যোগ নিতে হবে উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে।
ইউনিসেফ প্রতিনিধি বাংলাদেশের শ্রমবাজারের চাহিদা মোতাবেক দক্ষ জনবল তৈরিতে সরকার এবং শিল্প ও সেবা খাতের মধ্যে সমন্বয় জোরদার করতে প্রয়োজনীয় সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন। তিনি বলেন, সেকেন্ডারি এডুকেশন ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম (এসইডিপি)-এর আওতায় ইউনিসেফ বাংলাদেশে জাতীয় শিক্ষাক্রম সংস্কার এবং মাধ্যমিক পর্যায়ে ড্রপ আউট কমিয়ে আনতে কাজ করছে। কারিগরি শিক্ষা ও প্রশিক্ষণেও বাংলাদেশকে সহযোগিতা প্রদান করবে ইউনিসেফ ।