এবি ব্যাংকের ১৩৩ কোটি টাকা আত্মসাতে মামলার প্রস্তুতি দুদকের

এলসির মাধ্যমে বিদেশ থেকে পণ্য আমদানি করে মালামাল বিক্রি করে আরব বাংলাদেশ ব্যাংকের ১৩৩ কোটি টাকা ঋণ পরিশোধ না করে আত্মসাৎ করার অভিযোগে তিন জনের বিরুদ্ধে মামলার অনুমোদন দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বুধবার ( ২০ ফেব্রুযারি) সন্ধ্যায় দুদকের উপ-পরিচালক ও জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য সারাবাংলাকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

যাদের বিরুদ্ধে মামলার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে, তারা হলেন, মেসার্স ইয়াছির এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মো. মোজাহের হোসেন, এবি ব্যাংকের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও পিসিআর শাখার ব্যবস্থাপক মো. নাজির উদ্দিন এবং সাবেক সিনিয়র সহকারী ভাইস প্রেসিডেন্ট আজাদ হোসেন।

প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য জানান, অভিযোগটি দুদকের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ সিরাজুল হক ও উপ-সহকারী পরিচালক মো. সহিদুর রহমান অনুসন্ধান করেছেন। চট্টগ্রামের এবি ব্যাংকের পিসিআর শাখা থেকে ২০০১ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত বিভিন্ন ঋণ সুবিধা গ্রহণ করেন মো. মোজাহের হোসেন।

দুদকের এই উপ-পরিচালক আরও জানান, ২০১৩ সালে এবি ব্যাংকের ওই দুই কর্মকর্তার সুপারিশে ব্যাংকটির পোর্ট কানেক্টিং শাখা থেকে এলসি ঋণের মাধ্যমে বিদেশ থেকে প্রায় ৯৯ কোটি টাকার গম, চাল, ডাল, সার, বীজ, কেমিক্যাল আমদানি করে দেশের বাজারে বিক্রি করা হয়। কিন্তু গ্রাহক মোজাহের ওই ঋণের সুদসহ ১৩৩ কোটি ১৮ লাখ ৯২ হাজার ৬১৭ টাকা পরস্পরের মাধ্যমে আত্মসাৎ করেন।