দুর্নীতি ও হয়রানি মুক্তভাবে সরকারি সকল সেবা নিশ্চিত করতে হবে- দুদক চেয়ারম্যান

চট্রোগ্রাম প্রতিনিধি, লিগ্যালভয়েস নিউজ : আজ বিকাল ৫ টায় চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে বিভাগীয় পর্যায়ের কমকর্তাদের মাথে এক অনির্ধারিত মতবিনিময় সভায় দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, দুর্নীতি ও হয়রানি মুক্তভাবে সরকারি সকল সেবা নিশ্চিত করতে হবে। দুদক দ-বিধির ১৬৬ ধারা প্রয়োগ করতে চায় না জানিয়ে দুদক চেয়ারম্যান- এজন্য বিভাগীয় পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সরকারি সেবা নিশ্চিতকল্পে সর্বোচ্চ সক্রিয়তা প্রদর্শনের অনুরোধ জানান।

তিনি বলেন, চিকিৎসা সেবা জনগণের দোরগোরায় পৌঁছাতে হলে চিকিৎসকদের গ্রামীন চিকিৎসাকেন্দ্রে অবশ্যই উপস্থিত থাকেতে হবে। এর ব্যত্যয় হলে চিকিৎসা সেবা থেকে জনগণ বঞ্চিত হবে।

দুদক চেয়ারম্যান বলেন , দুদক কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে মামলার তদন্ত বা অনুসন্ধান সংক্রান্ত বিষয়ে কেউ কোনো টেলিফোন করলে ধরে নিতে হবে, এই ব্যক্তি ভুয়া দুদক কর্মকর্তা। কারণ এসকল বিষয়ে দুদক কর্মকর্তাদের টেলিফোন করার ক্ষেত্রে কমিশনের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তারপরও কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে যে কোনো প্রকার অনৈতিক কর্মকান্ডের অভিযোগ দিলে কমিশন আইনি ব্যবস্থা নিবে। কাস্টম বিভাগের কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে দুদক চেয়ারম্যান বলেন , ওভার ইনভয়েসিংয়ের মাধ্যমে অর্থ পাচার বন্ধ করতে হবে। তাই ফ্রেব্রুয়ারি মাসের ওভার-ইনভয়েসের তালিক মার্চ মাসের ০১ তারিখেই দুদকের নিকট জমা দেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, এসব ইনভয়েস পরীক্ষা করে দুদক দেখবে কারা ওভার ইনভয়েসিংয়ের সাথে জড়িত এবং তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া যায়। ফেল করা শিক্ষার্থীরা যাতে উপরের শ্রেণিতে প্রোমোশন না পায় , এ ব্যাপারে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মনিটরিংয়ের উপর গুরুত্বারোপ করে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, আপনারা সম্মানিত প্রধান শিক্ষকগণের সাথে যোগাযোগ রাখবেন এবং প্রয়োজনে তাদের অফিসে কক্ষে যাবেন। তিনি বিদ্যুৎ, ভূমিসহ অন্যান্য সকল প্রকার সরকারি সেবা স্বচ্ছতা ও জবাদিহি পরিবশে সম্পন্ন কররার অনুরোধ জানিয়ে বলেন, এর ব্যত্যয় হলে দুদকের সামনে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণের বিকল্প কোনো উপায় থাকবে না। তাই সকলকে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সাথে দায়িত্ব পালন করতে হবে। চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আব্দুল মান্নান এ সভায় সভাাপতিত্ব করেন।