সরফরাজের নিষেধাজ্ঞায় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের ক্ষোভ প্রকাশ

জোহানেসবার্গ, ২৮ জানুয়ারি ২০১৯ লিগ্যালভয়েস : বর্ণবাদী মন্তব্যের জেড়ে অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদকে চার ম্যাচ নিষিদ্ধ করায় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের প্রতি প্রচন্ড ক্ষোভ প্রকাশ করেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।
দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে প্রোটিয়া অল-রাউন্ডার আন্দিলে ফেলুকুওয়াওকে উদ্দেশ্য করে তীব্র বর্ণবাদী মন্তব্য করেছিলেন সরফরাজ। পরবর্তীতে সরফরাজ বিষয়টি বুঝতে পেরে ফেলুকুওয়াওর কাছে দু:খ প্রকাশ করেও পার পাননি। আইসিসি’র নিষেধাজ্ঞায় ঠিকই পরতে হলো ৩১ বছর বয়সী এই উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানকে। এর আগে টুইটারেও তিনি এ ব্যপারে দু:খ প্রকাশ করেন। জোহানেসবার্গে চতুর্থ ওয়ানডের আগে সরফরাজকে নিষিদ্ধ করে আইসিসি। যে কারনে চতুর্থ ম্যাচটিতে তার পরিবর্তে পাকিস্তানের অধিনায়কত্ব করেন শোয়েব মালিক। এই সফরে স্বাভাবিক ভাবেই আর খেলা হচ্ছেনা সরফরাজের।
পিসিবি এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘সরফরাজের বিপক্ষে আইসিসি’র সিদ্ধান্তের প্রতি পিসিবি তীব্র হতাশা প্রকাশ করছে। দুই খেলোয়াড় ও বোর্ডের মধ্যে বিষয়টি নিষ্পত্তি হলে এই ধরনের শাস্তি মেনে নেয়া যায়না। সরফরাজ প্রকাশ্যে দু:খ প্রকাশ করার পর তা মেনে নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ড। পিসিবিও এই ধরনের বর্ণবাদী মন্তব্য ও আচরনের বিপক্ষে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করে।’
সরফরাজের সাথে আলোচনা করে তাকে পাকিস্তানে ফিরিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পিসিবি। ওয়ানডে সিরিজের বাকি ম্যাচগুলো ও টি২০ সিরিজে তার পরিবর্তে শোয়েব মালিক অধিনায়কত্ব করবেন। ইতোমধ্যেই টি২০ দলে মোহাম্মদ রিজওয়ানকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়ে