ডায়াপারে ৬০ রকমের ক্ষতিকর রাসায়নিক পেয়েছে গবেষকরা

পরিবেশসম্মত বলে বিক্রি হওয়া ডায়াপারে বিষাক্ত উপাদান খুঁজে পেয়েছে গবেষকরা। ২৩টি ভিন্ন ধরনের ডায়াপার থেকে গ্লাইফোসেটসহ ৬০টি মারাত্মক রাসায়নিক উপাদান পেয়েছেন তারা।

খাদ্য, পরিবেশ, স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তাবিষয়ক ফরাসি সংস্থা অ্যান্সেসের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ গণমাধ্যম গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কৃত্রিম সুগন্ধির মতো কিছু রাসায়নিক ডায়াপারে ইচ্ছাকৃতভাবে দেয়া হয়, যা শিশুর ত্বকে সরাসরিভাবে প্রবেশ করে

আপনার শিশুকে যে ডায়াপার পরাচ্ছেন, সেটা কতটা স্বাস্থ্যকর ভেবেছেন কি? ফরাসি গবেষকরা এ প্রথম বিষয়টি নিয়ে গবেষণা করেছেন এবং এতে দেখা গেছে ডায়াপারে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ রাসায়নিক উপাদান, যা শিশুর জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকারক। ২০১৬ থেকে ২০১৮ সালের মধ্যে ফ্রান্সে বিক্রি হওয়া ২৩টি ভিন্ন ধরনের ডায়াপার থেকে গবেষকরা গ্লাইফোসেটসহ ৬০টি মারাত্মক রাসায়নিক উপাদান পেয়েছেন। সেসঙ্গে দেশটির সরকারও প্রস্তুতকারকদের দুই সপ্তাহের সময় দিয়েছে ক্ষতিকারক উপাদানযুক্ত এসব ডায়াপার সরিয়ে ফেলার।

গত সপ্তাহে গার্ডিয়ানে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, পরিবেশসম্মত বলে বিক্রি হওয়া ডায়াপারগুলোয় গবেষকরা বিষাক্ত উপাদান খুঁজে পেয়েছেন। তবে প্রতিবেদনে নির্দিষ্ট কোনো ব্র্যান্ডের নাম উল্লেখ করা হয়নি।

খাদ্য, পরিবেশ, স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তাবিষয়ক ফরাসি সংস্থা অ্যান্সেস জানায়, কৃত্রিম সুগন্ধির মতো কিছু রাসায়নিক ডায়াপারে ইচ্ছাকৃতভাবে দেয়া হয়, যা কিনা শিশুর ত্বকে সরাসরিভাবে প্রবেশ করে।

ফরাসি স্বাস্থ্য সচিব অ্যাগনেস বাজিনের মতে, এসব ডায়াপার ব্যবহারে শিশুর স্বাস্থ্যের কোনো তাত্ক্ষণিক ঝুঁকি নেই, তবে কিছু দীর্ঘমেয়াদি ঝুঁকি থাকতে পারে।

যদি মা-বাবারা ক্ষতিকারক রাসায়নিক থেকে সন্তানকে পুরোপুরি রক্ষা করতে চান ও বাড়িতে কম বর্জ্য উত্পন্ন করতে চান, তাহলে শিশুর জন্য কাপড়ের তৈরি ন্যাপি বেছে নিন। এগুলো অপেক্ষাকৃত সাশ্রয়ী, ত্বকের পক্ষে কোমল, রাসায়নিক উপাদান মুক্ত ও বারবার ধুয়ে বহুদিন ব্যবহার করা যায়। বলাই বাহুল্য, কাপড়ের তৈরি ন্যাপি ব্যবহার করে শিশু ও পরিবেশ উভয়ের জন্যই আপনি রাখতে সক্ষম হবেন নিরাপদ ভূমিকা।

সূত্র: ইনহ্যাবিট্যাট