কোস্টগার্ডকে আধুনিক করে গড়ে তোলা হচ্ছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, কোস্টগার্ডকে আধুনিক ও যুগোপযোগী বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলা হচ্ছে। এ বাহিনীর (কোস্টগার্ড) সক্ষমতা বাড়াতে মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনার আওতায় অল ওয়েদার ক্যাপাবল জাহাজ, হোভারক্রাফট, ড্রোন, হেলিকপ্টার ও মেরিটাইম পেট্রল এয়ারক্রাফটের মতো আধুনিক প্লাটফর্ম সংযোজনের পরিকল্পনা রয়েছে। এতে গভীর সমুদ্রে উদ্ধার তৎপরতা, চোরাচালান প্রতিরোধ ও নজরদারি বাড়ানো সম্ভব হবে।

তিনি আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে কোস্টগার্ড সদর দফতরে এ বাহিনীর ২৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুরে চারজন নিহতের ঘটনায় তদন্ত চলছে। কেউ আইনের ঊর্ধ্বে নয়। তদন্ত সাপেক্ষে দোষী যেই হোক না কেন তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি বলেন, কোস্টগার্ড প্রতিষ্ঠার পর থেকে এ বাহিনীর বিভিন্ন সরঞ্জাম ও জনবলের সীমাবদ্ধতা থাকার পরেও উপকূলীয় এলাকায় মানুষের জানমাল রক্ষা, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ, মৎস্য সম্পদ সংরক্ষণ এবং অবৈধ কর্মকান্ড দমনে অনেক অবদান রেখেছে।

মন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন, প্রধানমন্ত্রীর ভিশন অনুযায়ী সমুদ্র এলাকার অফুরন্ত সম্পদ ব্যবহার করে ব্লু-ইকোনমিকে এগিয়ে নিতে এবাহিনী নিরলসভাকে কাজ করবে।দেশের উপকূলীয় এলাকা দিয়ে অবৈধ অনুপ্রবেশ রোধ করতে কোস্টগার্ড কাজ করে যাচ্ছে বলেও জানান তিনি। বিশেষায়িত এ বাহিনীর পেশাগত ভিত্তি গড়ে তোলার জন্য নিজস্ব জনবল নিয়োগের পরিকল্পনা রয়েছে বলে মন্ত্রী উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠানে কোস্টগার্ড ও নৌবাহিনীসহ বিভিন্ন বাহিনীর শীর্ষ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কোস্টগার্ডের মহাপরিচালক রিয়ার অ্যাডমিরাল আশরাফুল হক।

এর আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ৪০জন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে পদক প্রদান করেন। এরমধ্যে রয়েছে ১৬ জন কর্মকর্তা, ২২ জন নাবিক এবং দুইজন অসামরিক কর্মকর্তা রয়েছেন।