সম্মিলিতি প্রচেষ্টায় নৈতিক সংস্কৃতির বিকাশ ঘটাতে হবে : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক যুব সমাজকে অবক্ষয়ের পথ থেকে বাঁচাতে সুস্থ ও নৈতিক সংস্কৃতির বিকাশ ঘটানোর আহ্বান জানিয়েছেন।
আজ রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরে ১০ম জাতীয় ক্যালিগ্রাফি প্রতিযোগিতা, পুরস্কার বিতরণী, ক্যালিগ্রাফি বিষয়ক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এই আহ্বান জানান।

‘শাহ্সূফী মাওলানা সৈয়দ মইনুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানীর (ক.) ৮২তম খোশরোজ শরীফ’ উপলক্ষে সৈয়দ মইনুদ্দীন আহমদ মাইজভান্ডারী ক্যালিগ্রাফি ফাউন্ডেশন এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
জাতীয় জাদুঘরের নলীনি কান্ত ভট্টশালী হলে ১০ দিন ব্যাপী ক্যালিগ্রাফি প্রদর্শনী গত ২৬ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে। এ প্রদর্শনী চলবে আগামী ৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, ‘অবক্ষয় ও অনৈতিক পথ থেকে যুব সমাজকে ইতিবাচক ধারায় ফিরিয়ে আনতে সুস্থ নৈতিকতাধর্মী শিল্প, সংস্কৃতি তাদের সামনে উপস্থাপন করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘শুধু সরকারের একার পক্ষে যুব সমাজকে শুদ্ধাচারের পথে ধরে রাখা যাবে না। সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে জঙ্গিবাদ, মাদক ও অসুস্থ সংস্কৃতির আগ্রাসন ঠেকাতে ভূমিকা রাখতে হবে। সম্মিলিতি প্রচেষ্টায় নৈতিক সংস্কৃতির বিকাশ ঘটাতে হবে।’
বেগম সুফিয়া কামাল হলে অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতা ও কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন ক্যালিগ্রাফি ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও মাইজভান্ডার দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন মাওলানা সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী।

অনুষ্ঠানে উদ্বোধক ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান। সেমিনারে অতিথি ও আলোচক ছিলেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ আনিসুর রহমান, প্রফেসর এমেরিটাস ড. আমিনুল ইসলাম, ইসলামি ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক শামিম মোহাম্মদ আফজাল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্সি বিভাগের অধ্যাপক ড. কেএম সাইফুল ইসলাম খান, চীন থেকে আগত মিসেস ফাতিমা ইয়াং চো প্রমুখ।


ক্যালিগ্রাফিসহ বিভিন্ন শিল্প কর্মে বিশেষ অবদান রাখায় শিল্পী মুর্তাজা বশীর, শিল্পী ড. আব্দুস ছাত্তার, শিল্পী ড. সবীহ্ উল আলম, শিল্পী সাইফুল ইসলাম, শিল্পী আরিফুর রহমান, শিল্পী ফেরদৌস আরা বেগমকে ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা প্রদান ও বিশেষ সম্মাননা ক্রেস্ট দেয়া হয়।